ডামুড্যায় বঙ্গবন্ধুর নামে মুক্তিযুদ্ধ গ্রন্থাগার প্রতিষ্ঠার দাবি

Thursday, March 14th, 2019

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুরের ডামুড্যা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের গোলাপ খাঁ জামে মসজিদ, লুৎফন্নেছা খাঁন ফোরকানিয়া মাদরাসা এবং ২নং ডামুড্যা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে সরকারী ১/১নং খতিয়ানের ২৮ শতাংশ জমির ২৩ শতাংশ জমি আ. রব সওদারগর নামক এক ব্যক্তির নামে এক বছরের জন্য লীজ রয়েছে। ওই লীজ বাতিল করে ওই জমিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে একটি মুক্তিযুদ্ধ গ্রন্থাগার প্রতিষ্ঠা করার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। বৃহস্পতিবার সকালে এলাকাবাসীর পক্ষে লিয়াকত আলী খান নামে একটি ব্যক্তি জেলা প্রশাসকের কাছে একটি আবেদনপত্র দিয়েছে।
ওই আবেদনপত্রের সূত্রে জানা গেছে, শরীয়তপুরের ডামুড্যা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের গোলাপ খাঁ জামে মসজিদ, লুৎফন্নেছা খাঁন ফোরকানিয়া মাদরাসা এবং ২নং ডামুড্যা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে সরকারী ১/১নং খতিয়ানের ২৮ শতাংশ জমি রয়েছে। তবে ওই জমির ২৩ শতাংশ জমি এক বছরের জন্য স্থানীয় আ. রব সওদারগারের নামে লীজ নেওয়া আছে। ওই লীজ বাতিলের করে ওই জমিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে একটি মুক্তিযুদ্ধ গ্রন্থাগার প্রতিষ্ঠা করার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। এ দাবি বাস্তবায়নের জন্য বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ ২০১৯) সকালে এলাকাবাসীর পক্ষে দক্ষিণ ডামুড্যার মৃত অ্যাডভোকেট হাসমত আলী খানের ছেলে লিয়াকত আলী খান নামক এক ব্যক্তি জেলা প্রশাসকের কাছে একটি আবেদনপত্র করেছে।
এ ব্যাপারে আবেদনকারী লিয়াকত আলী খান বলেন, আমি ডামুড্যা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের গোলাপ খাঁ জামে মসজিদ, লুৎফন্নেছা খাঁন ফোরকানিয়া মাদরাসা এবং ২নং ডামুড্যা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একজন জমিদাতা। এই প্রতিষ্ঠানগুলোর ধর্মীয় ও প্রাথমিক স্তরের শিক্ষাদানের পাশাপাশি ৬ দফা ও বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সম্পর্কে শিক্ষার্থী ও আগামী প্রজন্মের জ্ঞান অর্জন করার জন্য একটি মুক্তিযুদ্ধ গ্রন্থাগার প্রয়োজন। ওই জমির পাশে সরকারী ১/১নং খতিয়ানের ২৮ শতাংশ জমি রয়েছে। তবে এক বছরের জন্য স্থানীয় আ. রব সওদারগার নামে এক ব্যক্তি ওই জমির ২৩ শতাংশ জমি লীজ নিয়েছে। ওই লীজ বাতিল করে ওই জমিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে একটি মুক্তিযুদ্ধ গ্রন্থাগার প্রতিষ্ঠা করার দাবি জানাচ্ছি।
এছাড়াও একই দাবি জানিয়ে স্থানীয় শরীফ হোসেন জুয়েল খান বলেন, উক্ত জমিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে একটি মুক্তিযুদ্ধ গ্রন্থাগার প্রতিষ্ঠা হলে সেখানে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের যাবতীয় গ্রন্থ সংগ্রহ, জাতীয় দৈনিক পত্রিকা, সাহিত্য-সাময়িকী সহ বিভিন্ন নির্বাচিত জার্নাল পাঠকদের পাঠদানের জন্য নিয়মিত সংগ্রহ করা হবে। যাতে করে স্থানীয় এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীদের জ্ঞান চর্চার সুযোগ হয়। এজন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছি।