সংরক্ষিত আসন: আ’লীগের চূড়ান্ত মনোনয়ন তালিকা থেকে বাদ গেলেন লিপি

Monday, February 11th, 2019

একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের চূড়ান্ত মনোনয়ন তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন খুলনার শিরিনা নাহার লিপি।

সোমবার আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

এর আগে গত শুক্রবার আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গণভবনে দলের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় সংরক্ষিত নারী আসনে ৪১ জনকে মনোনয়নের সিদ্ধান্ত হয়।

সোমবার সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্যদের মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সই করা যে তালিকা প্রকাশ করা হয়, তাতে শিরিনা নাহার লিপির নামের পরিবর্তে মমতা হেনা লাভলীর নাম যুক্ত হয়।

এই একটি পরিবর্তন ছাড়া আগের তালিকায় স্থান পাওয়া বাকি সবাই আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সংরক্ষিত মহিলা আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন।

এদিকে শিরিনা নাহার লিপির মনোনয়নের খবর প্রকাশের পরপরই সমালোচনা করে ফেইসবুকে পোস্ট দেন আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

স্বামী বিএনপি নেতা হওয়ার পরও তাকে কেন মনোনয়ন দেয়া হল, সে প্রশ্ন তোলেন অনেকে।

আশির দশকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শামসুন্নাহার হল ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন লিপি। এরপর কেন্দ্রীয় কমিটিরও সদস্য ছিলেন।

তার বাবা প্রয়াত এমএ বারী সত্তরের দশকের প্রথম দিকে খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর স্নেহভাজন হিসেবে পরিচিত বারী খুলনা থেকে সংসদ সদস্যও হয়েছিলেন।

তবে তার স্বামী আইনজীবী গাজী কামরুল ইসলাম সজল বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। তিনি বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের সদস্য এবং বরিশাল উত্তর জেলা বিএনপির সহসভাপতি।